নেপালে একাধিক ভূমিধসে কমপক্ষে ৬০ জন নিহত হয়েছেন। প্রায় ৪১ জন নিখোঁজ রয়েছে।

ভারী বর্ষণ নেপালের ১৯ টি জেলায় বন্যার সৃষ্টি করেছে। অনেক জায়গায় ভূমিধসের ঘটনাও ঘটেছে। একাধিক ভূমিধসে কমপক্ষে ৬০ জন নিহত হয়েছেন। প্রায় ৪১ জন নিখোঁজ রয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত থেকেই কসকি ও লামজং জেলায় ভারী বর্ষণ শুরু হয়েছে। যার কারণে ওই দুই জেলায় একাধিক জায়গায় ভূমিধস পড়তে শুরু করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত তিনদিন ধরে প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে নেপালের ১৯ জেলায় বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। প্রচুর জায়গায় ধসও নেমেছে। প্রশাসনের তরফে উদ্ধার কাজ চালানোর চেষ্টা হলেও প্রতিকূল পরিবেশের জন্য তা সম্ভব হচ্ছে না। এদিকে বৃষ্টির ফলে হওয়া ভূমিধস এর কারণে গত চারদিনে কমপক্ষে ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কাঠমান্ডু পোস্টের রিপোর্ট অনুযায়ী, কাসকি জেলায় তিনটি ভিন্ন ভূমিধসে সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। কাসকির ডিএসপি সুভাস হামাল জানান, স্থানীয় সময় শুক্রবার ভোররাত আড়াইটে নাগাদ কাসকির পোখারা শহরে ভূমিধসে একটা গোটা বাড়ি ধূলিস্যাত্‍‌ হয়ে যায়। তিন শিশু-সহ একই পরিবারের পাঁচ জন ধ্বংস্তূপের নীচে চাপা পড়ে মারা গিয়েছেন।

লামজুং জেলাতেও ভূমিধসে একই পরিবারের তিন জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টা নাগাদ বিস্সাহর পুরসভা এলাকায় ভূমিধসে তাঁরা চাপা পড়েছিলেন। ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার করে লামজুং জেলা কমিউনিটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে, তিন জনকেই মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

প্রাকৃতিক দুর্যোগে ওই এলাকার কয়েক হাজার বাসিন্দা গৃহহীন হয়ে পড়েছেন। কাঠমান্ডু থেকে ২০০ কিলোমিটার উত্তরপশ্চিমের জেলা মিয়াগদিতে ২০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। পাশাপাশি ১৩ জনেরও বেশি নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।গত ২৪ ঘন্টায় ভারী বৃষ্টির কারণে সেখানে বেশ কয়েকটি বাড়িও ধসে পড়েছে। মিয়াগদিতে নিখোঁজদের সন্ধানে উদ্ধারকারীরা কাজ করে চলেছেন।

জেলা প্রশাসক আরও জানিয়েছেন , দুর্গত এলাকার বহু মানুষকে হেলিকপ্টারে করে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মিয়াগদির পাশের কাসকা জেলায়ও সাত জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। নেপালের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, গত ৭২ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন জায়গা প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ৫৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন ৩৯ জন। পাশাপাশি জখমও হয়েছেন ৪০ জন।

Post a Comment

If have any doubts, Please let me know

Previous Post Next Post