সীমান্তে চীনা সেনার উত্তেজনার কারণে, শত্রু নিধনে জন্য আরও ৭২০০০ সিগ-৭১৬ রাইফেল কিনছে ভারত।

চীনের সাথে চলমান সামরিক উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে ভারতীয় সেনাবাহিনী আরও ৭২,০০০ অত্যাধুনিক অ্যাসল্ট রাইফেল কিনবে। মার্কিন অস্ত্র প্রস্তুতকারক সংস্থা সিগ সর-এর (SiG Sauer) থেকে এই অস্ত্র কেনা হচ্ছে। ভারতের মাটিতে রাশিয়ান কালাশনিকভ বন্দুক তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছে নয়াদিল্লি। এই বিষয়ে রাশিয়ার ওই সংস্থার সঙ্গে চুক্তিও করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু সেই প্রকল্পের কাজ শম্বুক গতিতে এগোচ্ছে। যার জেরে এখন জরুরি ভিত্তিতে মার্কিন সংস্থা থেকে ৭২ হাজার সিগ রাইফেল কেনার বিষয়ে মনোস্থির করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে মোদী সরকার মার্কিন সেনা সিগ সুরের সাথে ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য ৭২,৪০০ টি অত্যাধুনিক রাইফেল কেনার জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল। এই ক্রয়ের জন্য খরচ পড়ে প্রায় ৬৪৭ কোটি টাকা। গত এক দশকের মধ্যে সেবার প্রথম ফাস্ট ট্র্যাক প্রকিউরমেন্ট (এফটিপি) পথে অস্ত্রগুলি কেনা হয়েছিল। এই অস্ত্র হাতেও পেয়েছে ভারতীয় সেনাবহিনী। মান্ধাতা আমলের ৫.৫৬ এমএম INSAS রাইফেলের পরিবর্তে উত্তর সীমান্তে মোতায়েন জওয়ানদের হাতে অত্যাধুনিক এই সিগ সর রাইফেল তুলে দেওয়া হয়েছে।

মার্কিন মুলুকের অস্ত্র প্রস্তুতকারক সংস্থা সিগ সর-এর ৭.৬২ mm অ্যাসল্ট রাইফেলকেই বলা হয় সিগ ৭১৬ বা সিগ সর রাইফেল। মূলত ফ্রন্টলাইন সেনা জওয়ানদের ব্যবহার করতে দেওয়া হয় এই অত্যাধুনিক রাইফেল। এতে রয়েছে ১৬ ইঞ্চির ব্যারেল, টেলিস্কোপিক স্টক- এর সাহায্যে যে কোনও দিক থেকেই নিশানা করা যায় শত্রুকে। ৫০০ মিটার দূরের লক্ষ্যতেও নিখুঁত নিশানা করতে সফল সিগ সর রাইফেল।

প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত বিশ্বস্ত সূত্র উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা ANI জানিয়েছে, দেশের সশস্ত্র বাহিনীর হাতে বেশ কিছু অর্থনৈতিক ক্ষমতা আছে। সেই ক্ষমতা প্রয়োগ করে মার্কিন সংস্থাকে আরও ৭২ হাজার সিগ ৭১৬ রাইফেলের বরাত দিতে চলেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

ভারত-চিন সীমান্ত সংঘাতের জেরে চরম উত্তেজনার আবহে চলতি জুলাই মাসের মধ্যে রাফাল যুদ্ধবিমান হাতে পেতে চলেছে ভারতীয় বায়ুসেনা। প্রথম দফায় একসঙ্গে ছ'টি রাফাল যুদ্ধবিমান ভারতে পৌঁছে যাবে। অত্যাধুনিক এই রাফাল যুদ্ধবিমান ভারতীয় বায়ুসেনাকে আরও শক্তিশালী করবে বলে সমর বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছিলেন। তার মধ্যে ভারতীয় সেনার হাতে আরও ৭২ হাজার সিগ সর রাইফেল চলে এলে দেশের প্রতিরক্ষা আরও শক্তিশালী হবে।

Post a Comment

If have any doubts, Please let me know

Previous Post Next Post